রায়পুরায় নৌকার ভরাডুবিতে ফের মেয়র হলেন জামাল মোল্লা

আগের সংবাদ

নরসিংদীতে বঙ্গবন্ধু ও স্বাধীনতা বই মেলা উদ্বোধন 

পরের সংবাদ

নরসিংদীর সমাবেশে আমির খসরু

ভোট ডাকাতিতে শরিক হতেই রাষ্ট্রপতির সংলাপে বসা

জেলা প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ২৯, ২০২১ , ৯:১৪ অপরাহ্ণ

বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, যারা ভোট ডাকাতিতে শরিক হতে চায়,তারাই রাষ্ট্রপতির সাথে সংলাপে বসতে যাচ্ছে। গণতন্ত্রের মা’কে মুক্ত

না করে বিএনপি কোন প্রহসনের নির্বাচনে অংশ নিবেনা। খালেদা জিয়ার মুক্তি ও উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশ পাঠানোর দাবিতে দেশজুড়ে বিএনপির মাসব্যাপী কর্মসূচির ধারাবাহিকতায় বুধবার বিকেলে নরসিংদীতে বিএনপির সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, তারেক জিয়া বলেছেন টেক ব্যাক বাংলাদেশে। এর মাহাত্ম অনেক বড়। অর্থাৎ বাংলাদেশ উদ্ধার করতে হবে। ভোট চোরদের হাত থেকে দেশকে উদ্ধার করতে হবে।

প্রধান বক্তা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ন মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী বলেন, রাষ্ট্রপতি সংলাপের নামে যে পিঠা উৎসবের আয়োজন করেছে। এই তামাশার সংলাপে বিএনপি যোগ দিবে না। হুদামার্কা কমিশন গঠণের কোন সুযোগ দিবেনা বিএনপি।

জনগণ সুযোগ পেলে তৃতীয় লিঙ্গের মানুষ হিজড়াকে ভোট দিবে, আওয়ামীলীগে ভোট দিবেনা উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, এই সংলাপের মধ্যে দিয়ে যে কমিশন গঠন করতে চেয়েছে তা লাথি মেরে ফেলে দিয়ে ত্বত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে একটি অবাধ সুষ্ঠ ও নির্বাচন করতে হবে।

বিএনপি’র যুগ্ম মহাসচিব ও নরসিংদী জেলা বিএনপির সভাপতি খায়রুল কবির খোকনে’র সভাপতিত্বে সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহা সচিব রুহুল কবির রিজভী, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, বিএনপির কেন্দ্রিয় নির্বাহী কমিটির স্বনির্ভর বিষয়ক সম্পাদক শিরিন সুলতানা, যুবদলের সভাপতি সাইফুল ইসলাম ভূঞা নিরব, ইঞ্জিনিয়ার ইসরাক হোসেন, সেচ্ছাসেবক দলের সাধারন সম্পাদক আব্দুল কাদের ভূঞা জুয়েল, জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক তোফাজ্জল হোসেন মাষ্টার,জেলা যুবদলের সভাপতি মহসিন হোসেন বিদ্যুৎ, শহর বিএনপির সভাপতি গোলাম কবির কামাল সহ বিএনপির অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

স্থাানীয় প্রশাসনের কাছে অনুমতি চেয়ে না পেয়ে সকাল থেকেই বিভিন্ন উপজেলার নেতাকর্মীরা জেলা বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয়ে এসে জড়ো হয়। সভার অনুমতি না দেয়ায় নেতাকর্মীদের মাঝে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা গেছে। তবে শেষ পর্যন্ত পুলিশের বিনা বাধায় জনসভাটি শেষ হয়।